এমএমএস ভিডিও ফাঁস, জীবন তছনছ নায়িকা মধুমিতার

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার। ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ সিরিয়ালে ‘পাখি’ চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পান তিনি। এরপর শুধুই সামনে এগিয়ে চলার গল্প। কিন্তু এই এগিয়ে যাওয়ার মাঝেই হঠাৎ একটি ভিডিও জীবন তছনছ করে দিলো মধুমিতার। আর সেটি ফাঁস হয়েছে এমএমএসের মাধ্যমে।

তবে এমন ঘটনা বাস্তবে নয় বরং হয়েছে সিনেমা পর্দায়। সুকান্ত গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘বটতলা’ উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি হচ্ছে ‘উত্তরণ’। জয়দীপ মুখার্জির পরিচালনায় এতে এক গৃহবধূর চরিত্রে দেখা যাবে মধুমিতাকে। সিনেমাটিতে তার চরিত্রের নাম পর্ণা। এক ঢাল খোলা চুল, সাদামাঠা শাড়ি, কপালে টিপ, সিঁথি ভর্তি সিঁদুর- বড় পর্দায় এমন সাজে এবারই প্রথম দেখা যাবে তাকে। সিনেমাটিতে তার স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করবেন রাজদীপ গুপ্ত।

ইনস্টাগ্রামে নতুন সিনেমাটির একটি পোস্টার শেয়ার করে মধুমিতা লিখেছেন, একটি এমএমএস কীভাবে একটি মেয়ের জীবন তছনছ করে দেয়, সেই গল্পই বলবে ‘উত্তরণ’।

‘উত্তরণ’ প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের বাংলা সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার বলেন, একটি ছেলে এবং একটি মেয়ের যদি কোনো ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে, সেক্ষেত্রে মেয়েটির দোষ থাকুক বা না থাকুক, সমাজ তাকেই দোষারোপ করবে। মেয়েরাও বোধ হয় সেটা বুঝে গিয়েছে। চিরাচরিত ধারণাকে ভেঙে অন্যায়ের প্রতিবাদ করার বার্তা দেবে আমার নতুন ছবি।

চরিত্র নিয়ে খোলাখুলি কথা বললেও কাকে ঘিরে কোন এমএমএস নিয়ে সিনেমার গল্প আবর্তিত হবে, সে বিষয়ে মুখ খুলেননি এই অভিনেত্রী। যদিও ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে খবর চাউর হয়েছে, সেই মেয়েটির চরিত্রে অন্য কেউ নন, থাকছেন মধুমিতা।

এখন পর্যন্ত মধুমিতা যে ৩টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন, সেগুলির থেকে পুরোপুরি একটি ভিন্ন ধরনের চরিত্র পর্ণা। এই পর্দাকন্যা পাখি ইমেজ সরিয়ে যখন বড় পর্দায় আসেন তখন বেশ বোল্ড অবতারে হাজির হয়েছিলেন। ‘লাভ আজ কাল পরশু’ সিনেমায় অভিনেতা অর্জুন চক্রবর্তীর শ’য্যাস’ঙ্গিনী হিসেবে হাজির হয়েছিলেন তিনি। দারুণ খোলামেলা’ভাবে বড় পর্দা মাতিয়েছেন এই অভিনেত্রী। ভক্তরা নতুন এক মধুমিতাকে দেখতে পেয়েছে। অনেকেই তাকে কটাক্ষও করেছেন।

অন্যদিকে বাস্তব জীবনেও কম কটা’ক্ষের শিকার হন না মধুমিতা। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের দৌলতে মাঝেমধ্যেই কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় তাকে। মধুমিতার ভাষ্য, আমি জানি, কী ধরনের পোশাক পরি। শালীন-অশা’লীনের পার্থক্যও বুঝি। যারা আমাকে খারাপ কথা বলেন, তারা নিজেরা কতটা ঠিক বা ভুল সেই দিকটিও তাদের ভেবে দেখা উচিত। ‘উত্তরণ’-ও কিন্তু সেই বার্তাই দেবে।