কলকাতার বিভিন্ন হোটেলে পরীমনির যাতায়াত, খুঁজছে ফুটেজ

লকাতার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দুটি সিনেমায় কাজ করেছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। তবে গত চার বছরে এই চিত্রনায়িকা কলকাতায় গেছেন অসংখ্যবার। প্রত্যেকবারই বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে সময় কাটিয়েছেন। এর ফলে প”’র্ন”’কা”’ণ্ডে পরীমনির যোগসূত্র খুঁজছে কলকাতা পুলিশ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নিউ টাউনের বিলাসবহুল বিভিন্ন হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ শুরু করেছে কলকাতা পুলিশ। এসব হোটেলে পর্নোগ্রাফি তৈরির অভিযোগে সম্প্রতি বেশ কয়েকজন মডেল ও অভিনেত্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাজের সূত্রে হোটেলগুলোতে যাতায়াত ছিল পরীমনির।

কলকাতার শীর্ষস্থানীয় সিনেমা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসকে মুভিজের ব্যানারে দুটি সিনেমায় অভিনয় করেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। একটি ‘রক্ত’, অন্যটি ‘স্বপ্নজাল’। তবে পরীমনির বিষয়ে কোনো কথাই বলতে রাজি হয়নি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা।

বিভিন্ন সূত্র বলছে, পরীমনির ‘ক্লায়েন্ট লিস্ট’ অনুযায়ী আপাতত এর মধ্যে রয়েছেন টালিগঞ্জের ২ পরিচালক, ৩ প্রযোজক ও ২ অভিনেতা। আরও নাম উঠে আসছে। রাজকুন্দ্রার পর্নকাণ্ডে পরীমনির যোগসূত্র খুঁজছেন ভারতের গোয়েন্দারা। পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি গণমাধ্যম এমন খবরই প্রকাশ করেছে।

তাদের দাবি, রাজকুন্দ্রারকাণ্ডে কলকাতার অনেক অভিনেত্রী-মডেলও জড়িত। পরীমনির সঙ্গেও যোগসূত্র থাকতে পারে। এছাড়া পরীমনির সঙ্গে জড়িত ছিলেন একাধিক প্রযোজকও। কলকাতা পুলিশের তদন্তকালীন অফিসার বিশপ সরকার বলেন, বিভিন্ন হোটেল থেকে আমরা বেশ কিছু ফুটেজ সংগ্রহ করেছি।

পরীমনির সঙ্গে রাজকুন্দ্রার যোগসূত্র আছে কি-না তা জানাতে এগুলো বেশ কাজে লাগবে। এটা ছাড়াও বেশ কয়েকজনকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করে বিভিন্ন তথ্য নিয়েছি। বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রাকে বিয়ে করেছেন। গত১৯ জুলাই রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি খারাপ কনটেন্ট তৈরি করেন এবং তা বিভিন্ন বিদেশি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আপলোড করতেন।