কুকুরের জন্য প্লেন থেকে ১৫ মিনিট দেরিতে নামলো সায়নী

সম্প্রতি ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে গ্রেফতার হয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেত্রী ও অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। জামিনও মেলে তার। মুক্ত হয়ে আদালত থেকে বেরিয়ে সায়নী বলেন, সত্যের জয় হলো। মিথ্যা মামলা করে তাকে দমানো যাবে না। তার লড়াই চলবে।

যেই ত্রিপুরায় এসে বিপত্তি পড়েছিলেন অভিনেত্রী। সেখান থেকে কলকাতা ফেরার পথেও পড়েন সমস্যায়। এখানেও যেন চলে তার লড়াই।

ঘটনাটি দমদম বিমানবন্দরের। সেখানে সায়নী ও তৃণমূলের অন্যান্য নেতাদের বহনকারী প্লেন নিচে নামতে বাধার সম্মুখীন হয়। এসময় তাদের প্লেন আকাশে চক্কর দিতে থাকে।

ওই প্লেনে সায়নী ঘোষ, ব্রাত্য বসু, কুণাল ঘোষ, সুস্মিতা দেব, অর্পিতা ঘোষের মতো বড় বড় নেতারা ছিলেন। তবে তাদের প্লেনের কেন এ অবস্থা হলো?

সূত্রের খবর, প্লেনটি অবতরণের জন্য পুরো প্রস্তুতি নিয়েছিল। এমনকি বেরিয়ে এসেছিল ‘ল্যান্ডিং গিয়ার’ (চাকা)। কিন্তু সেখানে ঝাঁকুনি অনুভব করতেই সেটি ফের ওপরে উঠে যায়। তখন প্লেনের পাইলট যাত্রীদের জানিয়ে দেন রানওয়েতে কুকুর ঢুকেছে। তাই এয়ার ট্র্যাফিক কন্ট্রোল প্লেন অবতরণ করতে মানা করেছে।

তবে কুকুরকে সরিয়ে ১৫ মিনিট পর প্লেন নামার অনুমতি দেওয়া হয়। এই ঘোষণার পর প্রাণ ফিরে পান তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা। দমদম বিমানবন্দর সূত্রে খবর, ইন্ডিগোর ওই প্লেনটি ত্রিপুরার আগরতলা থেকে কলকাতা ফিরছিল।

এর আগে রবিবার (২১ নভেম্বর) বিকেলে আগরতলা থেকে গ্রেফতার করা হয় সায়নীকে। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন।