সিনেমার আড়ালে প’’র্ন ছবি বানান এই অভিনেত্রীও

প’র্ন কান্ডে নাম জড়িয়েছে শিল্পা শেট্টির স্বামী রাজ কুন্দ্রার‌ (Raj Kundra)। ‘হট শুট’ নামের একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন মারফত সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে বিদেশি গ্রাহকের কাছে নীল ছবির ব্যবসা করে এতদিন মোটা অংকের অর্থ উপার্জন করেছেন তিনি।

এই অ্যাপ্লিকেশন মারফত তার দৈনিক আয় ছিল ২-৩ লক্ষ টাকা। লকডাউনে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬-৮ লক্ষ টাকায়! তবে এই নীলছবির ব্যবসা কিন্তু রাজের একার ছিল না। বলিউডে রাজ ছাড়াও বড়দের ছবি প্রযোজনা করতেন আরও একজন।

তিনিও বলিউডেরই একজন অভিনেত্রী। নাম তার গহনা বশিষ্ঠ (Gehana Vasisth)। এই চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে গহনাকেও সম্প্রতি গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। এখন অবশ্য তিনি জামিন পেয়ে বাইরে রয়েছেন।

তবে মামলা থেকে অব্যাহতি পাননি তিনি। গহনার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি বলিউডের উঠতি অভিনেতা এবং অভিনেত্রীদের কাজের লোভ দেখিয়ে ভিডিও বানাতেন এবং তা থেকে ব্যবসা করতেন!

গহনা অবশ্য বলিউডের খুব একটা পরিচিত মুখ নন। তবে ওটিটি প্ল্যাটফর্মের দর্শকরা তাকে বেশ ভালোভাবেই চেনেন। ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘গন্দি বাত’ এর দৌলতে রাতারাতি জনপ্রিয়তা অর্জন করেন অভিনেত্রী।

বর্তমানে অবশ্য তাকে বিভিন্ন ছবি, বিজ্ঞাপন এবং ওয়েব সিরিজে চুটিয়ে কাজ করতে দেখা যায়। তবে এর মাঝেই তার নামে নিষিদ্ধ ছবি নিয়ে কাজ কারবারে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে। গহনার জন্ম ছত্রিশগড়ে। তার বাবা শিক্ষা দপ্তরের কর্মী ছিলেন এবং ঠাকুরমা ছিলেন একটি স্কুলের অধ্যক্ষা। গহনা ছোট থেকেই পড়াশোনার প্রতি মনোযোগী ছিলেন। কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা শেষ করেছেন তিনি।

তবে বড় হওয়ার পর অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ জন্মায় তার। ২০১২-র ‘মিস এশিয়া বিকিনি’ প্রতিযোগিতায় বিজয়িনীর মুকুট উঠেছিল তার মাথায়। তারপর থেকেই বিভিন্ন নামী সংস্থার হয়ে মডেলিং করেছেন গহনা।

বালাজি প্রোডাকশন হাউজের তত্ত্বাবধানে ‘গন্দি বাত’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করে রাতারাতিই জনপ্রিয়তা অর্জন করেন গহনা। এরপর বিভিন্ন শোয়ের সঞ্চালক হিসেবে তাকে চিনেছেন দর্শক।

টিভি শো, ওয়েব সিরিজ ছাড়াও তামিল এবং তেলেগু ভাষার বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে তাকে। তবে হিন্দি ছবিতে সেভাবে সাফল্য অর্জন করতে পারেননি তিনি।

কর্মক্ষেত্রে ভীষণ পরিশ্রমী গহনা। ২০১৯ সালে অতিরিক্ত কাজের চাপ সহ্য করতে না পেরে একবার ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। এক টানা ৪৮ ঘন্টা শুটিংয়ের চাপ নিতে পারেনি তার শরীর। শুটিং ফ্লোরেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী।

তার শারীরিক অবস্থা ছিল আশঙ্কাজনক। চিকিৎসকেরা তাকে ভেন্টিলেশনে রাখতে বাধ্য হন। শোনা যায় ওই ওয়েব সিরিজে কাজ করার সময় টানা দু’দিন শুধু এনার্জি ড্রিঙ্কস ছাড়া আর কিছুই গ্রহণ করেননি তিনি।

ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া না করা এবং বিশ্রাম না নেওয়ার কারণেই প্রায় মৃত্যুর মুখে পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। যদিও চিকিৎসকদের প্রচেষ্টায় সে যাত্রায় রক্ষা পান গহনা। এর পর ফের একবার সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে উঠে আসে গহনা বশিষ্ঠের নাম।

প’র্ন ছবি বানানোর অভিযোগে মুম্বাই পুলিশ গ্রেপ্তার করে তাকে। কম বয়সি ছেলেমেয়েদের দিয়ে ১৫-২০ হাজার টাকা পারিশ্রমিকের বিনিময়ে প’র্ন বানিয়ে তা থেকে ব্যবসা করার অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে।

যদিও গহনার দাবি তিনি যে ছবি বানিয়েছেন, আদতে তা ‘ইরোটিকা’, প’র্ন নয়।এমনকি তিনি বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজ কুন্দ্রার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। গহনার দাবি,

যে কারণে তাকে নিয়ে এত সমালোচনা হচ্ছে শাহরুখ থেকে শুরু করে দীপিকা পাড়ুকোনও ওই একই কাজ করে থাকেন। এমনকি বিখ্যাত প’র্ন তারকা সানি লিওনের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন,

“রাজ ও আমি কোনো প’র্ন ফিল্ম বানাইনি। যারা আসলেই প’র্ন ফিল্ম করেন, যেমন সানি লিওন যিনি একজন প’র্ন অভিনেত্রী তাঁকে মহেশ ভাট ছবিতে কাজ দেন, আর আমাদের মতো মানুষেরা ফেঁসে যাই।”তথ্যসূত্র:ichorepaka.in